8:46 pm - Friday May 25, 2018

ইতিহাসের কনিষ্ঠতম ‘শহিদ’ হলেন আট মাসের লায়লা

ছোট্ট এই মেয়েটির দোষ কি ছিল? তার দোষ তার বাবা মার সাথে তাদের ভূমি ফিরে পাওয়ার আশা। আর সে সময় ইসরায়েলি টিয়ার শেলে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে জান্নাতের পথে পাড়ি দেয় নিষ্পাপ এই শিশুটি

ফুটফুটে মেয়ে লায়লা আল ঘান্দোর

মঙ্গলবার সকালে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, টিয়ার গ্যাসে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে লায়লা পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছে। লায়লার মা মারিয়াম কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জীবনের প্রথম আনন্দ থেকে আমাকে বঞ্চিত করেছে।’

মেয়ের লাশ জড়িয়ে ধরে মায়ের কান্না

শোকাহত এই মা আরো বলেন, ‘ও ছিল আমার ঘরে আনন্দের উৎস। যে ওর দিকে তাকাতো, ও তার দিকে তাকিয়েই একটি হাসি দিতো। লায়লার মৃত্যুর জন্য পুরোপুরি ইসরায়েল দায়ী।’

শেষবারের মতো মেয়েকে আদর করে দিচ্ছেন বাবা

সোমবারের সমাবেশে লায়লাকে না এনে তার নানুর কাছে রেখে আসতে চেয়েছিলেন মারিয়াম। পরে লায়লার ১২ বছরের মামা তাকে সেখানে নিয়ে আসে। ওই বিক্ষোভে শিশুটির নানুও যোগ দিয়েছিল। মারিয়ামের মা হায়াম ওমর বলেন, সমাবেশে বিপুল সংখ্যক শিশু থাকা সত্ত্বেও ইসরায়েলি বাহিনী ব্যাপক টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে।

স্বজনদের আহাজারি

ইসরায়েলি বাহিনী যখন ড্রোন দিয়ে ওপর থেকে টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ শুরু করে লায়লার মামা আম্মার তাকে কোলে নিয়ে দৌড়ে বাঁচানোর চেষ্টা করে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। লায়লার দেহটি নীল বর্ণ ধারণ করতে শুরু করে। হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক জানান, লায়লা আর বেঁচে নেই।

শান্তিপূর্ণ সমাবেশ থাকা সত্তেও হামলা করে শিশু হত্যার অভিযোগে আন্তর্জাতিক আদালতে ইসরায়েলি বাহিনীর বিচার চান লায়লার মা।

Filed in: এক্সক্লুসিভ নিউজ

Comments are closed.